Published on Jun 06, 2023 Updated 0 Hours ago

এমডিবি এবং ডিএফআই-এর মতো সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলিকে পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি ক্ষেত্রের দীর্ঘমেয়াদি ঋণ তহবিলের প্রয়োজন মেটাতে মাঠে নামতে হবে

পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তির (রিন্যুয়েবল এনারজি) জন্য ১ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার: বহুপাক্ষিক সংস্থার রূপান্তর

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) অনুসারে, উন্নয়নশীল দেশগুলিকে ২০৩০ সালের মধ্যে শূন্য-নিঃসরণ লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে শুধু পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি (আরই) ক্ষেত্রে প্রতি বছর ১ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার সবুজ মূলধন প্রয়োজন। যদিও ২০২২ সালে আরই ক্ষেত্রে মোট নিয়োজিত মূলধনের পরিমাণ ছিল ৪৯৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের চেয়ে কম; যার বেশির ভাগটাই উন্নত দেশগুলিতে সীমাবদ্ধ ছিল। এটি প্যারিস কনফারেন্স অফ পার্টিস (কপ) ২১-এ গৃহীত প্রতিশ্রুতির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়।

উন্নয়নশীল দেশগুলিকে তাদের অর্থনীতির ছোট আকার, সীমিত আর্থিক সঞ্চয়, সীমিত রাজস্ব শক্তি এবং অন্যান্য কৌশলগত ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগের প্রয়োজন থাকায় জলবায়ু কর্মসূচিতে দরকারি পুঁজি দক্ষতার সঙ্গে এবং দ্রুত বাড়াতে লড়াই চালাতে হয়। এর পাশাপাশি বেশ কয়েকটি উন্নয়নশীল দেশ ইতিমধ্যেই গুরুতর ঋণের বোঝার মধ্যে রয়েছে, যা রাজস্ব-উৎপাদনকারী আরই ক্ষেত্রে বিনিয়োগ-সহ জলবায়ু সংক্রান্ত কার্যকলাপের জন্য আরও সরকারি মূলধন সংগ্রহের ক্ষমতাকে প্রায় পঙ্গু করে দিয়েছে। বহুপাক্ষিক এবং দ্বিপাক্ষিক সংস্থাগুলির বড় মাপের হস্তক্ষেপ ছাড়া উন্নয়নশীল দেশগুলির পক্ষে তাদের দূষণহীন শক্তির চাহিদা মেটাতে প্রয়োজনীয় পুঁজি সংগ্রহ করা প্রায় অসম্ভব। অন্য দিকে, বেশ কিছু উন্নয়নশীল দেশ অর্থনৈতিক বৃদ্ধির কর্মসূচি পূরণে শক্তি উৎপাদন বৃদ্ধির পরিকল্পনা ত্বরান্বিত করার জন্য জীবাশ্ম জ্বালানির উপর খুব বেশি নির্ভরশীল। তাই দূষণহীন শক্তিতে উত্তরণে উন্নয়নশীল দেশগুলির সক্রিয় অংশগ্রহণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এটি শক্তি ক্ষেত্রে ডিকার্বনাইজ করার জন্য বিশ্বব্যাপী প্রচেষ্টাকে সশক্ত করবে এবং এর ফলে শূন্য-নিঃসরণ লক্ষ্য অর্জনে সহায়তা করবে।

ব্যাঙ্কের অর্থায়ন: আরই ক্ষেত্রের জন্য সর্বাধিক কার্যকর নয়

আরই ক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদি ঋণ তহবিল প্রয়োজন। যেহেতু বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ঋণ তহবিলের খরচ ইক্যুইটির চেয়ে কম, তাই এটি তহবিলের খরচ কমিয়ে আনে, যার ফলে আরই ট্যারিফ প্রতিযোগিতামূলক হয়ে ওঠে। ব্যাঙ্কগুলি দীর্ঘমেয়াদি  অর্থায়নের জন্য পরিকল্পিত নয়। কারণ তাদের দায়বদ্ধতার মেয়াদের  স্বীকৃতি তুলনামূলকভাবে কম। সাধারণত ব্যাঙ্কগুলি মধ্যমেয়াদের জন্য নির্বাচিত আরই প্রকল্পে অর্থায়ন পছন্দ করে। তারা বাড়তি মেয়াদের জন্য এই ধরনের ঋণ পুনর্নবীকরণ করতে চায়, যদি না সম্পদের গুণমান খুব খারাপ হয়ে যায়। যাই হোক, ঋণের সংশোধিত শর্তাবলি সম্পদের ক্রেডিট গুণমান এবং বিদ্যমান সুদের হারের উপর নির্ভর করে। সুদের হার বৃদ্ধি-সহ ঋণের পরিপ্রেক্ষিতে এই ধরনের পরিবর্তন ঋণগ্রহীতাদের (আরই প্রজেক্ট ডেভেলপারদের) পুনঃঅর্থায়নের ঝুঁকিতে ফেলতে পারে। এ ভাবে ডেভেলপাররা সাধারণত মধ্যমেয়াদি ঋণ এড়াতে চান এবং সুদের হারগুলিকে দীর্ঘতম সময়ের জন্য সুনির্দিষ্ট করতে পছন্দ করেন।

বহুপাক্ষিক এবং দ্বিপাক্ষিক সংস্থাগুলির দ্বারা একটি বড় মাপের হস্তক্ষেপ ছাড়া উন্নয়নশীল দেশগুলির পক্ষে তাদের দূষণহীন শক্তির চাহিদা মেটাতে প্রয়োজনীয় পুঁজি সংগ্রহ করা প্রায় অসম্ভব।

বাস্তবে উন্নয়নশীল দেশের ব্যাঙ্কগুলি ইতিমধ্যেই দীর্ঘমেয়াদি পরিকাঠামোগত সম্পদ নির্মাণে বিপুলভাবে ঋণ দিয়েছে। তাই পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তিক্ষেত্রের দীর্ঘমেয়াদি তহবিলের চাহিদা মেটানোর মতো সম্পদ আর তাদের হাতে নেই। এ ছাড়াও বেসেল কাঠামোর কারণে স্বল্পমেয়াদি সম্পদের তুলনায় দীর্ঘমেয়াদি সম্পদের ঝুঁকি বেশি হওয়ায় ব্যাঙ্কগুলি দীর্ঘমেয়াদি ঋণে উচ্চ সুদে ঋণ দেয়। সুতরাং, আরই ক্ষেত্রের দীর্ঘমেয়াদি ঋণ তহবিলের প্রয়োজনীয়তা মেটাতে পুঁজিবাজারই একমাত্র বিকল্প।

পুঁজিবাজারের অগ্রাধিকার

পুঁজিবাজার আরই ক্ষেত্রে যুক্তিসঙ্গত হারে কার্যকর দীর্ঘমেয়াদি ঋণ অর্থায়ন সমস্যার সমাধান করতে পারে। পুঁজিবাজারে পেনশন এবং বিমা সংস্থার মতো প্রাথমিক অর্থায়নকারীরা বড় প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী হতে পারে। কারণ বর্তমানে তাদের ব্যবস্থাপনায় ১০০ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি সম্পদ রয়েছে। এই দুই ধরনের বিনিয়োগকারীর দীর্ঘমেয়াদি অনুমানযোগ্য দায় মেটানোর জন্য অনুমানযোগ্য নগদ প্রবাহ-সহ দীর্ঘমেয়াদি এবং কম ঝুঁকির সম্পদ প্রয়োজন। তারা নিজেদের দীর্ঘমেয়া্দি দায় মেটাতে লিকুইড সিকিউরিটি এবং কম ঝুঁকিপূর্ণ স্থির আয়ের সিকিউরিটিতে বিনিয়োগ করতে পছন্দ করে। এখানে আরই ক্ষেত্রটি একটি সমাধান দিতে পারে; নির্মাণ ও উন্নয়ন পর্যায়ে এই ক্ষেত্রটিতে বিপুল  মূলধন প্রয়োজন হয়, এবং পরবর্তীতে চুক্তিভিত্তিক রাজস্ব কাঠামোর পাশাপাশি খুব কম বার্ষিক নির্দিষ্ট এবং পরিবর্তনশীল খরচ লাগে। এটি মোটের উপর স্থিতিশীল, কম ঝুঁকিসম্পন্ন এবং দীর্ঘমেয়াদি নগদ প্রবাহ প্রদান করে, ফলে এটি প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের ধাঁচের সঙ্গে খাপ খেয়ে যায়। এ ভাবে বর্তমানে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের লক্ষ্য করে সবুজ বন্ডের আয়ের অর্ধেকেরও বেশি আরই ক্ষেত্রে অর্থায়নের জন্য ব্যবহৃত হয়।

উন্নয়নশীল দেশগুলিতে ক্রেডিট রেটিং চ্যালেঞ্জের সমাধান করা

আরই বন্ডের ক্রেডিট রেটিং আর্থিক বাজারে কম হতে পারে। তাই উন্নত দেশগুলি্র পেনশন তহবিল এবং বিমা সংস্থার মতো কম ঝুঁকিসন্ধানী বৃহৎ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা উন্নয়নশীল দেশে আরই ডেভেলপারদের ইস্যু করা এই ডেট সিকিউরিটি কিনতে আগ্রহী নাও হতে পারে। এ ক্ষেত্রে বহুপাক্ষিক উন্নয়ন ব্যাঙ্ক (এমডিবি), ডেভেলপমেন্ট ফাইন্যান্স ইনস্টিটিউশন  (ডিএফআই) এবং অনুরূপ সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। তারা আংশিক ক্রেডিট গ্যারান্টি (পিসিজি) প্রদান করতে পারে, যাতে এই বন্ডগুলির ক্রেডিট রেটিং আপগ্রেড করা যায়। বিশ্ব ব্যাঙ্ক এবং এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্কের মতো এএএ স্তরের বৈশ্বিক সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের এ হেন নিশ্চয়তা ঋণের সম্পদকে কম ঝুঁকিপূর্ণ করে তুলতে পারে, যার ফলে এর ক্রেডিট রেটিং উন্নত হয়। গ্যারান্টির পরিমাণ বছরের পর বছর ধরে পরিবর্তন করা যেতে পারে। ঝুঁকি দীর্ঘমেয়াদে বাস্তবায়িত হতে পারে বলে দীর্ঘমেয়াদি ঝুঁকি কমানোর জন্য গ্যারান্টি কভারেজ সময়ের সঙ্গে  সঙ্গে বাড়তে পারে। সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান ক্রেডিট গ্যারান্টি দিলে প্রকল্পের ব্যাঙ্ক-যোগ্যতা সম্পর্কে বেসরকারি বিনিয়োগকারীদের কাছে ইতিবাচক সঙ্কেতও যাবে। বিনিয়োগকারীদেরও এ বিষয়ে সুনিশ্চিত করা হবে যে, কর্পোরেট গভর্নেন্সের সমস্যাগুলি সরিয়ে রাখা হবে এবং রাজনৈতিক ঝুঁকিও নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

পুঁজিবাজারে পেনশন এবং বিমা সংস্থার মতো প্রাথমিক অর্থায়নকারীরা বড় প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী হতে পারে। কারণ বর্তমানে তাদের ব্যবস্থাপনায় ১০০ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি সম্পদ রয়েছে।

গ্যারান্টির গুণক প্রভাব ঋণ এবং প্রযুক্তিগত সহায়তার চেয়ে বড়

বর্তমানে সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলির যে পরিমাণ মূলধন রয়েছে, তা বিশ্বব্যাপী সমগ্র আরই ক্ষেত্রের তহবিল চাহিদা মেটাতে যথেষ্ট নয়। মূলধনের প্রবাহ বাড়ানোর অন্যতম উপায় হল আংশিক ক্রেডিট গ্যারান্টি দিয়ে ব্যালান্স শিট উন্নত করে তাকে ব্যবহার করা। এর ফল স্বরূপ, ভ্যানিলা লোন এবং/অথবা ইক্যুইটির তুলনায় একটি গুণক প্রভাব সূচিত হয়। বর্তমানে সর্বোত্তম ভাবে সরকারি পুঁজি বিনিয়োগের মাধ্যমে বৃহৎ আকারের ব্যক্তিগত পুঁজি আকর্ষণ করা সম্ভব। বন্ডের খেলাপি হলে তখনই নিশ্চয়তা কার্যকর করার প্রশ্ন উঠবে, এবং এমডিবি ও ডিএফআইগুলিকে মূলধন বিতরণ করতে হবে। এর অর্থ এই যে, ডিএফআই এবং এমডিবিগুলিকে প্রচুর পরিমাণে মূলধন আগাম বিনিয়োগ করতে হবে না। যখন নিরাপত্তার বিষয়টি সামনে আসবে, তখনই এটির প্রয়োজন পড়বে। যেহেতু উন্নয়নশীল দেশগুলিতে বেশ কয়েকটি আরই প্রকল্পের রাজনৈতিক এবং নিয়ন্ত্রক ঝুঁকি রয়েছে, তাই এমডিবি এবং ডিএফআইগুলির কাছে উন্নয়নশীল দেশগুলিকে তাদের বন্ডের নিরিখে খেলাপি হতে বাধা দেওয়া বা ঋণ খেলাপি হওয়া ত্বরান্বিত করে এমন কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া থেকে বিরত রাখার সুবিধা রয়েছে।

দ্রুত হারে নিরাপত্তা প্রভাব বৃদ্ধি

এটি প্রস্তাব করা হয়েছে যে, আর্থিক নিশ্চয়তাকে একটি আংশিক ক্রেডিট নিশ্চয়তার ঊর্ধ্বে উঠে প্রসারিত করা যেতে পারে। পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তির ক্ষেত্রে এটি সকলেই জানেন যে, এ হেন বিনিয়োগগুলি প্রকল্পের মেয়াদে সক্রিয় নগদ প্রবাহের আকারে ফেরত আসে৷ এ ছাড়াও ক্রমশই এই ধরনের বিনিয়োগ/সম্পত্তির লিকুইডিটি বাড়ছে। কারণ বাজারে বেশ কিছু  প্রকল্প ডেভেলপার রয়েছেন, যারা চাপে পড়া/বিলুপ্ত সম্পদ দখল করতে আগ্রহী। এ ভাবে যেসব প্রকল্পে জলবায়ু সংক্রান্ত কর্মসূচি হস্তক্ষেপের ফলে নগদ প্রবাহ পাওয়া যায় এবং/অথবা যেগুলির অন্তর্নিহিত মূল্য থাকে, এমডিবি/ডিএফআই-এর তরফে তাদের শুধু মাত্র ঋণের সুদের অংশের জন্য একটি আংশিক ক্রেডিট গ্যারান্টি প্রদান করা বুদ্ধিমানের কাজ হবে। এই ধরনের পন্থা বিশ্বব্যাপী বৃহত্তর সংখ্যক বৈচিত্র্যময় জলবায়ু কর্মসূচি প্রকল্পের জন্য এমডিবি/ডিএফআই মূলধন মুক্ত করার পাশাপাশি আরও বেসরকারি খাতের বিনিয়োগে সাহায্য করবে। এটি একাধিক অংশীদারকে আকৃষ্ট করতে এবং তাদের মধ্যে মিথস্ক্রিয়াকে উদ্দীপিত করার জন্য চুম্বক হিসাবে কাজ করার উদ্দেশ্যে এমডিবি/ডিএফআই-এর কাজের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

উন্নয়নশীল দেশগুলিতে বেশ কয়েকটি আরই প্রকল্পের রাজনৈতিক এবং নিয়ন্ত্রক ঝুঁকি রয়েছে, তাই এমডিবি এবং ডিএফআইগুলির কাছে উন্নয়নশীল দেশগুলিকে তাদের বন্ডের নিরিখে খেলাপি হতে বাধা দেওয়া বা ঋণ খেলাপি হওয়া ত্বরান্বিত করে এমন কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া থেকে বিরত রাখার সুবিধা রয়েছে।

যেহেতু এমডিবি ও ডিএফআই-এর ব্যক্তিগত পুঁজির তুলনায় ঝুঁকি নেওয়ার প্রবণতা বেশি, তাই জলবায়ু সংক্রান্ত কর্মসূচির জন্য ব্যক্তিগত পুঁজিকে আকৃষ্ট করার উদ্দেশ্যে তাদের প্রকল্পগুলিকে ঝুঁকিমুক্ত করার উপর মনোনিবেশ করা উচিত। প্রাসঙ্গিক থাকার জন্য এমডিবি এবং ডিএফআই-এর উচিত তাদের পুঁজি বিনিয়োগের কৌশল পুনর্বিবেচনা করা। অভিযোজন/প্রশমন প্রকল্প এবং ব্যক্তিগত বিনিয়োগকারীদের মধ্যে সেতু হিসেবে কাজ করার মাধ্যমে আংশিক ঋণ গ্যারান্টির মতো ঝুঁকি প্রশমনের উপকরণগুলি উন্নয়নশীল দেশগুলিতে জলবায়ু ন্যায়বিচার প্রদানে অবদান রাখতে পারে।

The views expressed above belong to the author(s). ORF research and analyses now available on Telegram! Click here to access our curated content — blogs, longforms and interviews.

Authors

Labanya Prakash Jena

Labanya Prakash Jena

Labanya Prakash Jena is a Senior Manager and Head Centre for Sustainable Finance Climate Policy Initiative (CPI). Previously he was the Regional Climate Finance Adviser ...

Read More +
Prasad Ashok Thakur

Prasad Ashok Thakur

Prasad Ashok Thakur is a CIMO scholar and has authored a book and several articles published with The World Bank Asian Development Bank Institute United ...

Read More +